আমাদের অপরাধ আমরা সংখ্যালঘু পরিবারের সন্তান!

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ কাউছার মিয়াকে গ্রেফতার ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জহিরুল ইসলাম ভূঞার কঠোর সমালোচনা করে হিন্দু মহাজোটের সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০ টায় উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে শহীদ মিনার চত্ত্বরে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন জাতীয় হিন্দু মহাজোট ব্রাহ্মণবাড়িয়া শাখার সভাপতি জয় শংকর চক্রবর্তী, সাধারণ সম্পাদক প্রবীর চৌধুরী রিপন, সাংগঠনিক সম্পাদক সঞ্চয় রায় পোদ্দার।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জাতীয় হিন্দু মহাজোট ব্রাহ্মণবাড়িয়া শাখা’র সাধারণ সম্পাদক প্রবীর চৌধুরী রিপন।

লিখিত বক্তব্যে জানান, গত ১২ সেপ্টেম্বর রিদু শীলের ঘটনায় তার স্ত্রী ১৩ সেপ্টেম্বর রিদু শীলের স্ত্রী সবিতা শীল বাদী হয়ে মোঃ কাউছার মিয়াকে প্রধান আসামী করে মামলা করেন। মামলা করার পর থেকে আসামী পক্ষের লোকজনের মাধ্যমে বিভিন্ন ভাবে ভয়ভীতি ও হুমকি দেয়া হচ্ছে। মামলার প্রধান আসামী প্রকাশ্যে ঘুরাফেরা করলেও আসামী গ্রেফতার করতে পুলিশের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। এদিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জহিরুল ইসলাম ভূঞা হামলাকারীদের পক্ষপাতিত্ব করায় রিদু শীলের পরিবার খুবই অসহায়ত্বের মধ্যে দিনাতিপাত করছেন। ভূক্তভোগী রিদু শীল ও তার স্ত্রী সবিতা শীল সহ তার পরিবারের লোকজন বর্তমান অবস্থায় নিরাপত্তাহীনতায় দিনাতিপাত করছেন বলে সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়। হিন্দু মহাজোটের নেতৃবৃন্দ আক্ষেপ করেন বলেন, আমাদের অপরাধ আমাদের জন্ম সংখ্যালঘু পরিবারের ঘরে। মামলার প্রধান আসামী কাউছারকে দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

সংবাদ সম্মেলনে হিন্দু সম্প্রদায়ের নারী পুরুষ সহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য যে, গত ১২ সেপ্টেম্বর উপজেলার চান্দুরা ইউনিয়নের আলাদাউদপুর গ্রামের সংখ্যালঘু পরিবারের সন্তান রিদু শীল কে উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাউছার মিয়ার নেতুত্বে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম ও দোকান লুটরাজের ঘটনা ঘটে।