ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিশেষ এ্যাপস নিয়ে পুলিশের প্রেস ব্রিফিং

পুলিশ সদস্যদের গতিবিধি নজরদারি এবং জনসাধারণকে দ্রুত ও সহজতর প্রক্রিয়ায় আইনি সহায়তা নিশ্চিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পুলিশের বিশেষ এ্যাপসের মাধ্যমে বিভিন্ন ডিজিটাল সেবা নিয়ে প্রেস ব্রিফিং করেছে পুলিশ সুপার মোঃ আনিসুর রহমান। সোমবার দুপরে কাউতলী পুলিশ সুপার কার্যালয়ের মিলনায়তেন এ ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় পুলিশ সুপার জানান, ডিজিটাল সেবা সমূহের মধ্যে রয়েছে জিডি অটোমেশন লস্ট এন্ড ফাউন্ড এ্যাপস, সিডিএমএস প্লাস, থানায় কন্ট্রোল রুমে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা মনিটরিং, সিডিএমএস এর মাধ্যমে মামলার নিষ্পত্তি প্রক্রিয়া। তিনি আরো জানান, লস্ট এন্ড ফাউন্ড এ্যাপস এর মাধ্যমে জেলার সকল থানায় জিডি অটোমেশন সম্পূর্ণ করা হচ্ছে।

এতে করে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সহজে ডিউটি পার্টি, থানার প্রহরা, হাজতখানা, থানা এলাকায় অফিসারদের গমনাগমনসহ সকল অফিসার এর দায়িত্ব বন্টন ইত্যাদি এ্যাপসের মাধমে লিপিবদ্ধ করা হয়। এছাড়াও সিডিএমএস এর মাধ্যমে জেলার সমস্ত ফোর্সের কর্মস্থলে উপস্থিতিসহ দৈনিক কর্মকান্ড ও মুভমেন্ট ইত্যাদি ধারা বর্ণনার মাধ্যমে এবং লেখাচিত্রের মাধ্যমে দেখা যায়। এছাড়াও মামলা সংক্রান্ত যেকোন তথ্য খুবই দ্রুত ও সহজতরভাবে পাওয়া যাওয়ার পাশাপাশি মামলার সংখ্যা সম্পর্কে সহজে তথ্য পাওয়া যায়। তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় এটি একটি নতুন অধ্যায়ের সূচনা বলে মনে করেন পুলিশের এই কর্মকর্তা।

পুলিশ সুপার বলেন, ‘গত ছয় মাস থেকে দেশে প্রথম ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় কর্মরত ১৫০০ পুলিশ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা দৈনিক হাজিরা দিচ্ছেন অ্যাপের মাধ্যমে। যা সম্পন্ন করতে সময় লাগছে মাত্র কয়েক সেকেন্ড। এখন কোনো সদস্যকে কষ্ট করে উপস্থিত হয়ে হাজিরা দিতে হয় না।’এই অ্যাপের কার্যক্রম চালুর পর থেকে কোনো পুলিশ সদস্যের অবস্থান জানতে হিসাব-নিকাশের দরকার হয় না।

পুলিশ সুপার আরও বলেন, ‘টহলরত পুলিশ কখন কোন অবস্থানে আছেন তা প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে নির্ণয় করা যাচ্ছে বলে জবাবদিহিতার একটা জায়গা তৈরি হয়েছে। এছাড়া, পুলিশ কন্ট্রোল রুম থেকে জেলার সব থানার সামগ্রিক কার্যক্রম ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার মাধ্যমে নজরদারি করা যায় বলে স্বচ্ছতাও নিশ্চিত করা যাবে।’

পুলিশ সুপার মনে করেন, সিডিএমএস++ অ্যাপটি ব্যবহারের কারণে জেলা পুলিশের কর্মকাণ্ড সহজ হয়ে উঠেছে। এটি চালু হওয়ায় এখন থেকে পুলিশের পাশাপাশি সাধারণ মানুষকে সহজে সেবা দেওয়া সম্ভব হবে।

প্রেস ব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার জানান, এই অ্যাপ ব্যবহার করে থানার অফিসাররা ডিউটি বণ্টন করতে পারছেন। ডিজিটাল সেবার মধ্যে আরও আছে- জিডি অটোমেশন লস্ট এন্ড ফাউন্ড অ্যাপ, সিডিএমএস এর মাধ্যমে মামলার নিষ্পত্তি প্রক্রিয়া।

তিনি জানান, লস্ট এন্ড ফাউন্ড অ্যাপের মাধ্যমে জেলার সব থানায় জিডি অটোমেশন করা হচ্ছে। এছাড়াও মামলা সংক্রান্ত যে কোনো তথ্য দ্রুত ও সহজভাবে পাওয়ার পাশাপাশি মামলার সংখ্যা নিয়েও সহজে তথ্য পাওয়া যায়।

এখন পর্যন্ত সিডিএমএস++ অ্যাপের মাধ্যমে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় মোট ১৯২১টি মামলা দায়ের হয়েছে এবং নিষ্পত্তি হয়েছে ১৮৯৫টি বলে জানান পুলিশ সুপার।