নবীনগরে নৌযানে অতিরিক্ত যাত্রী ঠেকাতে প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত

নিজস্ব প্রতিবেদক : নবীনগরে বিগত কিছুদিন আগে নৌ দুর্ঘটনায় তিনজন সহ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলায় ভয়াবহ নৌ দুর্ঘটনায় নড়েচড়ে বসেছে জেলা প্রশাসন।

ইতোমধ্যে জেলা ও নবীনগরে নৌযানে মাত্রাতিরিক্ত যাত্রী ও ঘাট সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে গণমাধ্যমে রিপোর্ট প্রকাশ করেন বিভিন্ন সংবাদকর্মীরা।
তারই প্রেক্ষিতে জেলায় ও নবীনগরে অনিয়ম ঠেকাতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হচ্ছে জেলা ও নবীনগর উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

তারই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার (০২ সেপ্টেম্বর) নবীনগর উপজেলার সদরে নৌঘাটে ও নৌ পথে নৌযানে শৃংখলা ফিরিয়ে আনতে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মোশারফ হোসাইন।

এ সময় নৌযানে জীবন রক্ষাকারী বিভিন্ন সরঞ্জাম না থাকায় এবং নৌযানে অতিরিক্ত যাত্রী উঠানোর অভিযোগে দুটি মামলায় দুইটি নৌযানকে অর্থদণ্ড প্রদান করেন।
নৌযানের মালিকদের ও যাত্রীদের সচেতন করা হয় এবং নৌ পথে চলাচল করার সময় লাইফ জ্যাকেট ব্যবহার করার জন্য মোটিভেশন করা হয়।

এছাড়াও তিতাস নদীতে নৌকাযোগে সাউন্ডবক্স বাজিয়ে উচ্চস্বরে গান বাজনা করতে থাকায় শব্দ দূষণের অভিযোগে ০২ টি মামলায় দুইটি নৌযানকে অর্থদণ্ড করা হয়।
নৌযানের মালিকদের ও যাত্রীদের এই বিষয়ে ভবিষ্যতের জন্য সতর্ক করে দেন তিনি।

এ বিষয়ে মুঠোফোনে নবীনগর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মোশারফ হোসাইন বলেন, ”বিশেষ করে বর্ষা মৌসুমে নৌ দুর্ঘটনার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি, তাই এই মৌসুমে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।
তাছাড়াও অন্যান্য সময় নিয়ম অনুযায়ী অভিযান পরিচালিত হবে।